এজাহার (এফ আই আর) কী, কেন, কোথায় এবং কিভাবে করে

FIR

কেউ কোনো কারণে কোনো ক্ষতির সম্মুখীন হলে কিংবা কোনো অপরাধের শিকার হলে প্রথমেই সবার ভাবনায় আসে যে কাছের থানায় গিয়ে প্রতিকার চাইতে হবে। কিন্তু থানায় গিয়ে কীভাবে প্রতিকার চাইতে হবে, তা নিয়ে অনেকেই বিভ্রান্তিতে থাকেন। বিশেষ করে থানায় জিডি (সাধারণ ডায়েরি) নাকি এজাহার করবে, তা নিয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। অনেক সময় বড় কোনো অপরাধ ঘটলেও অনেকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। অনেকে পুলিশের কাছে যাওয়াকে ঝামেলা মনে করেন। আবার গেলেও পুলিশের কাছে ঠিকঠাক উপস্থাপন করতে পারে না। ফলে অনেকেই আইনের সঠিক প্রতিকার নেওয়া থেকে বঞ্চিত হন। এতে অপরাধীরা সুযোগ পায় এবং নীরিহ মানুষেরা বারবার অপরাধের স্বীকার হয়।
ফৌজদারী অপরাধের ক্ষেত্রে এজাহার দায়েরের মাধ্যমে মামলার সূচনা হয়। তাই পরবর্তীতে মামলার গতিপ্রকৃতি নির্ধারণে এজাহার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দলিল হিসেবে পরিগণিত হয়। ঠিকমতো এজাহার দায়ের করতে না পারায় প্রতিনিয়ত অনেকেই বিচার পাবার অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এজাহার রুজু করার জন্য পর্যাপ্ত আইনি জ্ঞান ও দক্ষতা না থাকায় প্রায়ই আমাদের মামলা সংক্রান্ত নানান রকম ঝামেলাপূর্ন পরিস্থিতির শিকার হতে হয়। তাছাড়া আইনগতভাবে এজাহার লেখার পদ্ধতিও যথেষ্ট জটিল।

এজাহার (এফ আই আর) কী
এজাহার কে কখন করতে পারে
কিভাবে এজাহার লিখে
এজাহারের দরখাস্তের নমুনা
এজাহারে যেসব বিষয় উল্লেখ করতে হয়
জিডি ও মামলার মধ্যে পার্থক্য
যে ভুল করা যাবে না
থানায় এজহার (মামলা) না নিলে করনীয়
এজাহারের পরবর্তী পদক্ষেপ কী

সূত্র: ইন্টারনেট

এই দিনে
This day in history
এক নজরে দেখে নিন বাংলাদেশ ও বহির্বিশ্বে ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।