এই দিনে

ইতিহাসে এই দিনে : ২৩ সেপ্টেম্বর
বাংলাদেশ

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩

আনসারের রাইফেল ছিনিয়ে আগুন দিয়েছেন শ্রমিকেরা
গাজীপুর সদর উপজেলার ভোগড়া এলাকায় কলোসাস অ্যাপারেলস লিমিটেড কারখানার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আনসার ক্যাম্পে আজ সোমবার সকালে হামলা চালিয়েছেন পোশাকশ্রমিকেরা। আনসারের সদস্যদের মারধর করে তাঁদের কাছ থেকে চারটি রাইফেল ছিনিয়ে নিয়ে আগুন দেন শ্রমিকেরা।

বাঁচানো গেল না অগ্নিদগ্ধ বাসচালক নজরুলকে
দগ্ধ শরীরের অসহ্য যন্ত্রণা নিয়ে চার দিন লড়েছেন। স্বামীর সুস্থতার জন্য স্রষ্টার কাছে বিরামহীন মিনতি করেছেন স্ত্রী। চিকিৎসকদের চেষ্টায়ও ছিল না ঘাটতি। সবকিছু ব্যর্থ হয়েছে। জামায়াতের ডাকা হরতালে গাজীপুরে অগ্নিদগ্ধ বাসচালক নজরুল ইসলাম (৪০) আজ সোমবার ভোর ছয়টায় মারা গেছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। জামায়াতের ডাকা টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের দ্বিতীয় দিনে গত বৃহস্পতিবার গাজীপুর সদর উপজেলার ভোগড়া এলাকায় যাত্রীবাহী বাসে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বাসচালক নজরুল অগ্নিদগ্ধ হন।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গাজীপুর শহর থেকে সকাল নয়টার দিকে ভিআইপি-২৭ নামের একটি যাত্রীবাহী বাস ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছিল। পথে চান্দনা চৌরাস্তা বাসস্ট্যান্ড থেকে শিবিরের কয়েকজন কর্মী যাত্রীবেশে বাসে ওঠেন। বাসটি ভোগড়া এলাকার বর্ষা সিনেমা হলের সামনে পৌঁছলে তাঁরা কেরোসিন ও পেট্রল ঢেলে বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেন। এতে বাসচালক নজরুল ইসলামের শরীরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তিনি বাসটি থামিয়ে দ্রুত নেমে পড়েন। পরে আশপাশের লোকজন তাঁর গায়ের আগুন নেভান। অগ্নিদগ্ধ চালক নজরুলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছিল।

বিএনএফের বিলুপ্তি ঘোষণা করলেন নাজমুল হুদা
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ফ্রন্টের (বিএনএফ) আহ্বায়ক হিসেবে এর বিলুপ্তি ঘোষণা করেছেন ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা। আজ সোমবার বিকেলে রাজধানীর তোপখানা রোডে তাঁর নিজ কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই ঘোষণা দেন। নাজমুল হুদা বলেন, ‘আমি এই দলটির প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছিলাম, আর আমি নিজেই এর বিলুপ্তির ঘোষণা দিচ্ছি। যে উদ্দেশ্য নিয়ে আমি বিএনএফকে সুপ্ত অবস্থা থেকে পুনরুজ্জীবিত করেছিলাম, দলটির প্রধান সমন্বয়ক আবুল কালাম আযাদ সেই উদ্দেশ্যকে সম্পূর্ণরূপে নস্যাত্ করে বিএনপিকে ধ্বংস করার প্রত্যয়ে লিপ্ত রয়েছেন। এ অবস্থা চলতে দেওয়া যায় না। জনগণের মধ্যে বিএনএফ নিয়ে যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে, তা নিরসনের লক্ষে বিএনএফ বিলুপ্তি করা হয়েছে।’

সরকার সাড়া না দেওয়ায় জাতিসংঘের উদ্যোগ ব্যর্থ: ফখরুল
চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুনের উদ্যোগ সফল না হওয়ার জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করেছে বিএনপি। দলটি আশা করছে, জাতিসংঘের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের চলমান রাজনৈতিক সংকট নিয়ে তাঁর মতামত দেবেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আজ সোমবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান। মির্জা ফখরুল অভিযোগ করেন, সংকট নিরসনে জাতিসংঘের উদ্যোগে সরকার সাড়া না দেওয়ায় তা সফল হয়নি। তিনি বলেন, জাতিসংঘের অধিবেশন চলাকালে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুজন করে প্রতিনিধি জাতিসংঘে পাঠাতে আহ্বান জানিয়েছিল সংস্থাটি। কিন্তু আওয়ামী লীগ তাতে সাড়া দেয়নি।

আরো ঘটনা : বাংলাদেশ
 

জন্ম

Gopal Sen

আনন্দমোহন বসু
(২৩ সেপ্টেম্বর ১৮৪৭- ২০ আগস্ট ১৯০৬)
বাঙালি রাজনীতিবিদ এবং সমাজসেবক

আনন্দমোহন বসু জাতীয়তাবাদী নেতা, সমাজ সংস্কারক ও সাধারণ ব্রাম্ম সমাজের প্রতিষ্টাতা। তিনি কিশোরগঞ্জ জেলার জয়সিদ্ধি গ্রামের এক ভূস্বামী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। আনন্দমোহন বসু ১৮৬২ সালে ময়মনসিংহ জিলা স্কুল হতে এন্ট্রান্স পরীক্ষা পাস করেন। তিনি এফ.এ এবং বি.এ উভয় পরীক্ষায় প্রেসিডেন্সি কলেজ হতে শীর্ষস্থান অধিকার করে উত্তীর্ণ হন। ধারাবাহিকভাবে পরীক্ষাসমূহে তাঁর অসাধারণ কৃতিত্বের ফলে তিনি ১৮৭০ সালে কাঙ্ক্ষিত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়এর প্রেমচাঁদ রায়চাঁদ বৃত্তি লাভ করেন। এ বৃত্তি লাভের ফলে বসুর পক্ষে উচ্চ শিক্ষার জন্য ইংল্যান্ডে যাওয়া সম্ভব হয়। তিনি ক্যামব্রিজের ক্রাইস্ট চার্চ কলেজে উচ্চতর গণিত বিষয়ে পড়াশোনা করেন। তিনি অনার্সসহ ডিগ্রি পরীক্ষায় (ট্রাইপস) প্রথম শ্রেণি লাভ করেন এবং প্রথম ভারতীয় র‌্যাঙলার হন। একই সময়ে ১৮৭৪ সালে তিনি আইন ব্যবসা শুরু করেন।

সামাজিক জীবনে বোস এর বিজ্ঞ পরামর্শদাতা ছিলেন সুরেন্দ্রনাথ ব্যানার্জি যাঁর সঙ্গে ১৮৭১ সালে লন্ডনে তাঁর প্রথম সাক্ষাৎ হয়েছিল। জীবনের প্রথম দিক হতেই তাঁর মন ছিল ধর্মপ্রবণ। ইংল্যান্ডে যাওয়ার পূর্বেই তিনি ১৮৬৯ সালে সস্ত্রীক ব্রাহ্ম ধর্মমত গ্রহণ করেন। বসু স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করে কেশবচন্দ্র সেন এর পরিচালনাধীন তৎকালীন ব্রাহ্ম সমাজ পরিচালিত ধর্মীয় এবং সামাজিক সংস্কার আন্দোলনে যোগদান করেন। ১৮৭৮ সালে নানা বিষয়কে কেন্দ্র করে ব্রাহ্ম সমাজে ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়। এ বিষয়গুলির মধ্যে ছিল কেশবচন্দ্র সেনের নাবালিকা কন্যার সঙ্গে কুচবিহারের রাজার নাবালক পুত্রের বিয়ে। আনন্দমোহন ভিন্ন মতাবলম্বীদের নেতৃত্ব দেন এবং ‘সাধারণ ব্রাহ্ম সমাজ’ নামে একটি নতুন ব্রাহ্ম সমাজ প্রতিষ্ঠা করেন।

রাজনৈতিকভাবে আনন্দমোহন বসুর দুটি উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে। তিনিই সর্বপ্রথম উপলব্ধি করেন যে, উপনিবেশিক পরিমন্ডলে সমাজের সর্বাপেক্ষা সচেতন শ্রেণি ছাত্রসমাজকে অবশ্যই দেশের সামাজিক এবং রাজনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে গঠনমূলক ভূমিকা পালন করতে হবে এবং সে লক্ষ্যে তাদের নিজস্ব একটি সংগঠন থাকা উচিত। বসু ১৮৭৫ সালে ‘ক্যালকাটা স্টুডেন্টস্ অ্যাসোসিয়েশন’ প্রতিষ্ঠা করেন এবং একে মর্যাদা দেওয়ার জন্য তিনি নিজেই এর প্রথম সভাপতি হন। রাজনৈতিক ক্ষেত্রে বসু ১৮৭৬ সালে ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন (Indian Association) নামে একটি রাজনৈতিক সংগঠন প্রতিষ্ঠা করে নতুন পথ প্রদর্শনকারী হিসেবে আর একটি অবদান রেখে যান। এর উদ্দেশ্য ছিল উপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন সংগঠিত করা।

সমাজ সংস্কারক ও শিক্ষাবিদ হিসেবে আনন্দমোহন বসুর অবদান বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। নারীশিক্ষার উন্নয়নের জন্য তিনি কঠোর পরিশ্রম করেন। সমাজ থেকে নিরক্ষরতা দূর করার জন্য সামাজিক কর্মসূচি প্রণয়ন করতে তিনি সকলকে উদাত্ত আহবান জানান। ১৮৭৬ সালে তিনি কলকাতায় ‘বঙ্গ মহিলা বিদ্যালয়’ প্রতিষ্ঠা করেন। ১৮৭৯ সালে তিনি কলকাতায় সিটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁর নিজ শহর ময়মনসিংহে তাঁর নিজের বাসায় সিটি কলেজের একটি শাখা খোলা হয়। সিটি কলেজিয়েট স্কুল নামে প্রতিষ্ঠানটি এখনও বর্তমান। বসুর সম্মানে সিটি কলেজটির পুনঃনামকরণ করা হয় আনন্দমোহন কলেজ। আনন্দমোহনের উজ্জ্বল শিক্ষাজীবন ও শিক্ষার প্রতি গভীর অনুরাগের কারণে ব্রিটিশ সরকার তাঁকে ১৮৮২ সালে ইন্ডিয়ান এডুকেশন কমিশনের (হান্টার কমিশন) সদস্য করে। ক্রমাগতভাবে তিনি বঙ্গীয় আইন সদস্য, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ‘ফেলো’ মনোনীত হন। ১৮৯২ সালের ভারত আইনের অধীনে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গীয় আইন পরিষদে একজন সদস্য নির্বাচন করার অধিকার লাভ করে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় হতে বঙ্গীয় আইন পরিষদ এর সদস্যনির্বাচিত হন আনন্দমোহন বসু। একজন জাতীয়তাবাদী হিসেবে বসু তীব্রভাবে বঙ্গভঙ্গের বিরোধিতা করেন। ১৯০৫ সালের ১৬ অক্টোবর তিনি বঙ্গভঙ্গবিরোধী এক সভায় সভাপতিত্ব করেন এবং রোগশয্যা হতে বিশাল জনসমাবেশে ভাষণ দেন। ১৯০৬ সালের ২০ আগস্ট আনন্দমোহন বসরু মৃত্যু হয়।

সূত্র: উইকিপিডিয়া

জন্ম-মৃত্যু : খ্যাতিমান বাঙালি ব্যক্তিত্ব
 
বহির্বিশ্ব

২০১৫: অভিবাসী সংকট নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছেছে ইইউভুক্ত দেশ
ইউরোপে সম্প্রতি প্রবেশ করা শরণার্থী সমস্যার ক্ষেত্রে সমঝোতায় পৌছেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদের এ বিষয়ে গতকাল মঙ্গলবার বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে এক বৈঠক করেন। সমঝোতা অনুযায়ী, অভিবাসীরা ইতালি, গ্রিস এবং হাঙ্গেরি থেকে অন্যান্য দেশে যাবে। এ নিয়ে ভোটাভুটি হয়। ভোটে মধ্য ইউরোপের চার দেশ বিপক্ষে ভোট দেয়। তবে বেশিরভাগ ইইউ সদস্য এর পক্ষে ভোট দেয়। সম্প্রতি ইইউ দেশগুলোতে ১ লাখ ২০ হাজার শরণার্থী প্রবেশ করেছে।

মধ্য ইউরোপের কিছু দেশ শরণার্থী গ্রহনে ইইউ’র বাধ্যতামূলক কোটা বাস্তবায়নের ওপর জোর দিচ্ছে। তবে কিছু দেশ সেই কোটা বাস্তবায়নে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। জাতিসংঘ বলছে, ইইউ’র পরিকল্পনা যথেষ্ট নয়। চলতি বছর এই পর্যন্ত ইইউভুক্ত দেশগুলোতে ৫ লাখ শরণার্থী বা অভিবাসী এসেছে। বছরের শেষার্ধ এই সংখ্যা ৮ লাখে পৌঁছাতে পারে। হাঙ্গেরি, পোল্যান্ড, স্লোভাকিয়া এবং চেক রিপাবলিক এর আগে ইইউ’র কোটার বিরোধিতা করছে। জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল বলেছেন, বাধ্যতামূলক কোটা হচ্ছে একটি প্রাথমিক পদক্ষেপ। এদিকে জার্মানির রেল কর্তৃপক্ষ গতকাল জানিয়েছে, তারা রেকর্ডসংখ্যক শরণার্থী আগমনের কারণে সীমান্ত নিয়ন্ত্রণের জন্য আগামী ৪ অক্টোবর পর্যন্ত অস্ট্রিয়া ও হাঙ্গেরির সঙ্গে তাদের ট্রেন সার্ভিস বন্ধ রাখবে। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে হাজার হাজার শরণার্থী বুদাপেস্ট, হাঙ্গেরি ও অস্ট্রিয়ার সালজবুনা থেকে জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলীয় মিউনিখ নগরীতে এসেছে।
আরো ঘটনা : বহির্বিশ্ব
 

মৃত্যু

Sigmund_Freud

সিগমুন্ড ফ্রয়েড
(৬ মে ১৮৬৫ – ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৩৯)
অস্ট্রিয় মানসিক রোগ চিকিৎসক এবং মনস্তাত্ত্বিক

ফ্রয়েড অস্ট্রিয় মানসিক রোগ চিকিৎসক এবং মনস্তাত্ত্বিক। তিনি “মনোসমীক্ষণ” নামক মনোচিকিৎসা পদ্ধতির উদ্ভাবক। মানব সত্বার ‘অবচেতন’, ‘ফ্রয়েডিয় স্খলন’, ‘আত্মরক্ষণ প্রক্রিয়া’ এবং ‘স্বপ্নের প্রতিকী ব্যাখ্যা’ সহ অনেক মনো ধারণায় জনপ্রিয়তার শীর্ষে তাঁর অবস্থান। উনাকে মনঃস্তাত্ত্বিক বিশ্লেষন বিদ্যারজনক বলা হয়।

বাবা পেশায় ব্যবসায়ী ছিলেন।ব্যবসার সূত্রেই ফ্রয়েডের পরিবার ভিয়েনাতে বসবাস শুরু করে। ফ্রয়েডের পরিবার ইহুদীবাদে বিশ্বাসী হলেও ফ্রয়েড মূলত কোন ধর্ম চর্চা করতেন না। ফ্রয়েডের শিক্ষা জীবনের শুরু ভিয়েনাতে। ১৮৮৩ সালে ভিয়েনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষাজীবনের গণ্ডি পার করেন তিনি। তাঁর কর্মের স্বীকৃতি হিসেবে তাঁর প্রাপ্তির ঝুলিতে রয়েছে যুক্তরাষ্টের রয়েল সোসাইটির সদস্য পদ।

১৯০৩ খৃষ্টাব্দে সিগমুন্ড ফ্রয়েড ‘দ্যা ইন্টার প্রেটেশন অব ড্রীম ও সাইকো প্যাথলজি অব এভরিডে লাইফ’ নামে দুটি বই লিখে পরিচিত হন। এই বই দুটিতে তিনি মানসিক রোগগ্রস্ত মনের প্রকৃতি বিশ্লেষণ করে স্বাভাবিক মনের ঠিকানা খুঁজতে প্রয়াসী হয়েছেন। ১৯০৫ সালে তিনি শিশুদের মনের প্রবৃতি নিয়ে গবেষণা করে ‘লিবিডো তত্ত্বে’র উদ্ভাবন করে মনোবিজ্ঞানকে অনন্য অবস্থানে তোলে নিয়ে আসেন। ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৩৯ সালে মনঃস্তাত্ত্বিক বিদ্যার অন্যতম প্রভাবশালী এই গবেষক ,চিকিৎসক , মনোবিজ্ঞানী লন্ডনের হ্যামস্টেডে ৮৩ বছর বয়সে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

সূত্র: উইকিপিডিয়া

জন্ম-মৃত্যু : খ্যাতিমান আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব
 

Supernatural Day

supernatural-day

In 2005 the TV network known as ‘The WB’ aired the first season of Supernatural, showing the adventures of Sam and Dean Winchester as they began their journey to discover what killed their mother, and where their father disappeared to. For Supernatural fans, it also began an obsession that would know no end as they fell in love with the characters and suffered with them through the trials they’ve faced on the Road So Far. Supernatural Day is dedicated to bringing those fans together to celebrate the Winchesters and their love of the Supernatural Verse.

Supernatural has a history that goes back much further than the show itself and was born Eric Kripke, its creator, and his obsession with urban legends. Initially, he had intended to present the idea of Supernatural as a movie, and the fans couldn’t be happier that that wasn’t the road he took. Instead, he presented it as a series for years before someone finally took an interest. This is probably for the best for fans, especially since the original concepts included both an anthology series of disconnected stories and a group of tabloid reporters fighting demons in search of the truth from the back of a van.

The best way to celebrate Supernatural Day is to sit down with a group of your closest fans and start a marathon to see your way through the 12 seasons. We might suggest you give yourself a few days to get through it, it’s a heck of a ride and the road so far has been a long one. Remember to bring your container of salt!

দেশেবিদেশে : আজকের ছুটির দিন ও উদযাপনা
 
আজকের উদ্ধৃতি

‘অভ্যন্তরীণ ভুল রাজনীতি করে সংবিধান, গণতন্ত্র ও নির্বাচন থেকে তারা (বিএনপি) যেমন ছিটকে পড়েছে, ঠিক তেমনি রোহিঙ্গা বিষয়েও চক্রান্ত যুদ্ধের উস্কানি, সামপ্রদায়িক জিগির তোলা ও রাজনীতির রোহিঙ্গাকরণের অপচেষ্টা করে শরণার্থী সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানের প্রক্রিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।’
হাসানুল হক ইনু : তথ্যমন্ত্রী (২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭)


আজকের তারিখ ও এখনকার সময় (বাংলাদেশ)

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।