এই দিনে

ইতিহাসে এই দিনে : ২৬ মার্চ
বাংলাদেশ

২৬ মার্চ ১৯৭১

চট্টগ্রামের কালুরঘাটের ‘স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র’ থেকে শেখ মুজিবুর রহমান লিখিত স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রের সম্প্রচার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে চট্টগ্রামের স্বাধীন বাংলা বিপ্লবী বেতার কেন্দ্র থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা প্রচারিত হয়। পাকিস্তানের স্বৈরশাসক ইয়াহিয়ার নির্দেশে তার সামরিক বাহিনী তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) জনগণের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ২৫ মার্চ কালরাতে। এ রাতে বঙ্গবন্ধু ও নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনকারী দল আওয়ামী লীগের প্রধান নেতা শেখ মুজিবুর রহমানকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাওয়া হয়। গ্রেফতার হওয়ার খানিক আগেই বঙ্গবন্ধু ইস্ট পাকিস্তান রাইফেলসের (ইপিআর) মাধ্যমে স্বাধীনতার ঘোষণা জারি করেন। তার ঘোষণা ছিল এমন; ‘এটাই হয়তো আমার শেষ বার্তা। আজ থেকে বাংলাদেশ স্বাধীন। বাংলাদেশের জনগণের প্রতি আমার আহবান, আপনারা যে যেখানেই থাকুন এবং যার যা কিছু আছে তা দিয়ে শেষ পর্যন্ত দখলদার সেনাবাহিনীকে প্রতিহত করুন। বাংলাদেশের মাটি থেকে পাকিস্তান দখলদার বাহিনীর শেষ সৈনিকটি বিতাড়িত করা না পর্যন্ত এবং চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত আপনাদের এ লড়াই চালিয়ে যেতে হবে।’ পরের দিন ২৬ মার্চ চট্টগ্রাম বেতারের কয়েকজন কর্মকর্তা ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এম.এ.হান্নান প্রথম বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রটি মাইকিং করে প্রচার করেন। পরে চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে মেজর জিয়াউর রহমান ২৭ মার্চ রাতে বঙ্গবন্ধুর পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র পাঠ করেন। প্রধান রাজনৈতিক নেতার পক্ষে সামরিক বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তার ঘোষণায় বাঙালি নিশ্চিত হয়, স্বাধীনতার যুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে, সবাই দলে দলে যোগ দেয় মুক্তিযুদ্ধে। দীর্ঘ ৯ মাস পর ১৬ ডিসেম্বরে উদিত হয় বিজয়ের।

২৬ মার্চ ২০০৬

Bangladesh

স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে হামলা ভাংচুর লুটপাট

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ কর্মীদের মধ্যে স্বাধীনতা দিবসের শোভাযাত্রা নিয়ে ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া ও পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এসব ঘটনায় সাংবাদিকসহ অন্ততঃ ২৮ জন আহত হয়। টাঙ্গাইলের গোপালপুরে গতকাল রবিবার স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা বের করাকে কেন্দ্র করে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ কর্মীদের সংঘর্ষে অন্ততঃ ৫০ জন আহত হয়েছে। জামালপুরের সরিষাবাড়িতে আওয়ামী লীগের জনসভাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, গুলি বর্ষণ ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। নেত্রকোনার দুর্গাপুরে আওয়ামী লীগের শোভাযাত্রায় বিএনপির হামলায় ১৫ জন আহত হয়। লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ কর্মীদের মধ্যে দুই দফা সংঘর্ষে ১২ জন আহত হয়।

২৬ মার্চ ২০০৭

Bangladesh

মামুনের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের

যৌথ বাহিনীসূত্রে জানা যায়, বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব তারেক রহমানের ঘনিষ্ঠ বন্ধু, বেসরকারি টিভি চ্যানেল ওয়ানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বহুল আলোচিত ব্যবসায়ী গিয়াসউদ্দিন আল মামুনকে গতকাল সোমবার ভোরে বনানী ডিওএইচএসের ৭৮ নম্বর বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় মামুন ডিওএইচএসের বাসায় দেখা করতে আসছেন এই সংবাদ পেয়ে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা তার উক্ত বাসা ঘেরাও করে ফেলেন। চারতলা ভবনটিতে যৌথ বাহিনী অভিযান চালায়। এর আগে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা মামুনের স্ত্রী শাহানা ইয়াছমিনকে দরজা খোলার অনুরোধ করেন। কিন্তু তিনি তাদের পরিচয় জানতে চান এবং গেট খুলতে গড়িমসি করেন। পরে তিনি বাসার গেট খুলে দেন। যৌথ বাহিনী ভবনের তৃতীয়তলা থেকে মামুনকে গ্রেফতার করে। ঐ সময় অবৈধ অস্ত্রের কথা জিজ্ঞাসা করলে মামুন কোন অস্ত্র নেই বলে যৌথ বাহিনীর সদস্যদের জানান। পরে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা মামুনের শয়নকক্ষের সোফার ডান হাতলের নিচে ফোমের ভিতর থেকে পলিথিন দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় পয়েন্ট ২২ বোরের একটি রিভলবার ও ৮ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেন। ঐ সময় মামুন ও তার স্ত্রী অস্ত্রটির বৈধ কোন কাগজপত্র যৌথ বাহিনীর সদস্যকে দেখাতে ব্যর্থ হন। পুলিশ তিন সাক্ষী ডিওএইচএসের ৩৪ নম্বর বাসার শাহরিয়ার মান্নান (৩০), ৫২ নম্বর বাসার রিয়াজউদ্দিন আল মামুন ও ক্যান্টনমেন্ট থানার মহিলা আনসার মাহমুদা বেগমের উপস্থিতিতে অবৈধ অস্ত্র জব্দ করে। পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামুনের বিরুদ্ধে ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা দায়ের করে। এই মামলায় তাকে ৫ দিনের রিমাণ্ডে নেয়া হয়।

জয়ধ্বনিতে মুখরিত দেশ

কথা রেখেছেন হাবিবুল বাশার, লক্ষ্য পূরণ হয়েছে ডেভ হোয়াটমোরের, আর আনন্দের বন্যা বইছে দেশবাসীর মাঝে। স্বাধীনতা দিবসে ১৫ কোটি মানুষের জন্য বঙ্গসার্দুলদের এমন উপহারের তুলনা হয় না। শাবাশ বাংলাদেশ ক্রিকেট দল, শাবাশ মাশরাফি, রফিক, সাকিব, রাজ্জাক, রাসেল, মুশফিক, তামিম, আশরাফুল, নাফীস, আফতাব। বিশ্বকাপের শেষ গ্রুপ ম্যাচে বারমুডার বিরুদ্ধে ৭ উইকেটে স্বচ্ছন্দ জয়ের সাথে সাথে রাজধানীসহ এদেশের ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ উল্লাস ধ্বনীতে মেতে ওঠে। জয়ধ্বনিতে মুখরিত হলো সারাদেশ। বাংলাদেশের এই সাফল্যে বিদায় নিতে হয় ক্রিকেট জগতের পরাক্রমশালী ভারতকে। ১৯৮৩’র বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ও গত আসরের রানার্সআপরা এবারো ছিল অন্যতম ফেভারিট। গত ১৭ মার্চ কুইন্সপার্ক ওভালে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং সবক্ষেত্রেই ভারতের চেয়ে সেরা ছিল বঙ্গসার্দুলরা। বাঘা বাঘা তারকাদের ১৯১ রানে গুঁড়িয়ে দিয়ে ৫ উইকেটে অবিস্মরণীয় জয় তুলে নেয় দামাল ছেলেরা। ঐদিনের সাফল্যতেই বাংলাদেশের সুপার এইট নিশ্চিত হয়ে যায়। প্রথমবারের মত বিশ্বকাপে খেলতে আসা বারমুডা অত্যন্ত দুর্বল এবং নিশ্চিত জয় জানা সত্ত্বেও বাংলার ক্রীড়া পাগল মানুষ টিভির সামনে বিনিদ্র রজনী কাটায়। আশরাফুল সাকিবের জয়সূচক বাউন্ডারি আসার সাথে সাথে রাজধানীসহ সাড়া দেশ উল্লাস নগরীতে পরিণত হয়। গভীর রাতেই বিভিন্ন এলাকায় মিছিল বের হয়।

২৬ মার্চ ২০১৩

Bangladesh

আরো ঘটনা : বাংলাদেশ
 

মৃত্যু

Gobinda

গোবিন্দ চন্দ্র দেব
(১ ফেব্রুয়ারি, ১৯০৭ – মার্চ ২৬, ১৯৭১)
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শনবিদ্যার একজন অধ্যাপক

তিনি জি সি দেব নামেই সমধিক পরিচিত। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশী বুদ্ধিজীবী-সম্প্রদায়কে ধবংস করার একটি পরিকল্পনার অংশ হিসেবে পাকিস্তানী সৈন্যরা ক্ষণজন্মা মনিষী, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন দার্শনিক ড গোবিন্দ চন্দ্র দেবকে ১৯৭১ সালের ২৬ শে মার্চের প্রথম প্রহরে হত্যা করেছিল।

জি.সি. দেব তদানিন্তন ব্রিটিশ ভারতের আসাম প্রদেশের পঞ্চখণ্ড পরগনার (বর্তমানে বাংলাদেশের সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলা) গ্রাম লাউতাতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন (১ ফেব্রুয়ারি, ১৯০৭)। তার পূর্বসূরীগণ ছিলেন উচ্চগোত্রীয় ব্রাহ্মণ যারা গুজরাট থেকে সিলেট এসেছিলেন। পিতার মৃত্যুর পর জি,সি দেব স্থানীয় মিশনারীদের তত্ত্বাবধানে বড় হন। জি,সি দেব তার শৈশবেই মেধাবী ছাত্র হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তিনি ১৯২৫ সালে বিয়ানীবাজার উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে প্রথম বিভাগে এন্ট্রাস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। কলকাতার রিপন কলেজ থেকে তিনি ১৯২৭ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তিনি ১৯২৯ সালে সংস্কৃত কলেজ থেকে ব্যাচেলর অব আর্টস এবং ১৯৩১ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দর্শন শাস্ত্রে মার্স্টাস সম্পন্ন করেন।

ড. দেব ১৯৬৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের চেয়্যায়ম্যানের দ্বায়িত্বভার গ্রহণ করেন এবং ১৯৬৭ সালে প্রফেসর পদে পদান্নতি লাভ করেন। ষাটের দশকের শেষের দিকে ড. দেব পেনসেলভেনিয়ার wilkes-Barre কলেজে শিক্ষকতা করেন। স্বল্প সময়ের মধ্যেই তিনি সেখানে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন এবং সেখানে তার গুণমুগ্ধরা তার মানবিক দর্শন প্রচারের লক্ষ্যে The Govinda Dev Foundation for World Brotherhood প্রতিষ্ঠা করে। ড. দেব ১৯৬০ থেকে আমৃত্যু পাকিস্তান দর্শন সমিতির নির্বাচিত সম্পাদকের দ্বায়িত্ব পালন করে গেছেন। এছাড়া ড. দেব তাঁর জীবন ঘনিষ্ঠ মানবিক দর্শন প্রচারের জন্য সমস্ত সম্পত্তি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে দান করে গেছেন যা দ্বারা পরবর্তীতে ১৯৮০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন কেন্দ্র (ডিসিপিএস) প্রতিষ্ঠিত হয়।

ড. দেব এর পালিতা কন্যা রোকেয়া বেগম আর তার স্বামী তাঁর বাসায় থাকতেন। ২৫শে মার্চ, ১৯৭১ তারিখে রাতে সারারাত ধরেই তাঁর বাড়ির উপর গুলিবর্ষিত হয়েছে। ভোরের দিকে তিনি তার মেয়েকে বললেন: মা তুমি একটু চা কর। আমি ততক্ষণে ভগবানের একটু নাম করি। এ সময় দরজা ভেঙে পাকিস্তানী সেনারা ঘরে প্রবেশ করে। “কাঁহা মালাউন কাঁহা” বলে তারা প্রফেসর দেবকে খোঁজ করে। পালিতা কন্যা রোকেয়া বেগমের স্বামী গোবিন্দ চন্দ্র দেবকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন এবং সৈন্যদের মন গলানোর জন্য কলেমা পড়েন। কিন্তু এতে কাজ হয়নি। ড. দেব নিজেও দু’হাত ওপরে তুলে “গুড সেন্স গুড সেন্স” বলে তাদের নিবৃত্ত করতে চেয়েছেন। কিন্তু হাত কয়েক ব্যবধানে থেকে সেনাসদস্যরা ব্রাশ ফায়ার করে গোবিন্দ চন্দ্র দেব ও রোকেয়া বেগমের স্বামীকে হত্যা করে। রোকেয়া বেগম আকস্মিক আক্রমণ ও হত্যাকাণ্ডে অচেতন হয়ে পড়ায় বেঁচে যান। ২৬শে মার্চ বিকেলে জগন্নাথ হলের পশ্চিম পাশ (যেখানে তাঁর লাশ ফেলে রাখা হয় ) ঘেঁষে উত্তর-দক্ষিণ বরাবর গর্ত খুঁড়ে মাটি চাপা দেয়া হয় হলের প্রভোস্ট ড. দেবসহ অন্যদের লাশ।

সূত্র: উইকিপিডিয়া

জন্ম-মৃত্যু : খ্যাতিমান বাঙালি ব্যক্তিত্ব
 
বহির্বিশ্ব
Bangladesh

২০১৭: গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্রে ৪০ পুলিশ কর্মকর্তার শিরশ্ছেদ

গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র বা ডিআর কঙ্গোতে বেসামরিক বাহিনীর যোদ্ধারা পুলিশের একটি বহরে হামলা চালিয়ে অন্তত ৪০ পুলিশ অফিসারকে শিরশ্ছেদ করে হত্যা করেছে। কঙ্গোর মধ্যাঞ্চলীয় কাসাই প্রদেশে এ ঘটনা ঘটেছে। খবরটি জানিয়েছে স্থানীয় কর্মকর্তারা। বিবিসির প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে কামউইনা সাপু নামের যোদ্ধারা পুলিশ বহরটির ওপর হামলা চালায়। সাপু গোষ্ঠীর ভাষায় কথা বলতে পারা ছয় পুলিশ কর্মকর্তাকে না মেরে ছেড়ে দেয়। কিন্তু বাকি সবাইকে শিরশ্ছেদ করে হত্যা করা হয়। এমনটাই জানিয়েছে কাসাই সভাপতি ফ্রাসোয়া কালাম্বা।

গত অগাস্টে নিরাপত্তা বাহিনী কামউইনা সাপু গোষ্ঠীর নেতাকে হত্যা করার পর থেকে কাসাইয়ের পরিস্থিতি অশান্ত হয়ে ওঠে। শুক্রবার শিকাপা ও কানানাগা এলাকার মধ্যবর্তী স্থানে টহল দেওয়ার সময় পুলিশ বহরটির ওপর হামলা চালানো হয়। প্রাদেশিক গভর্নর অ্যালেক্সি এনকান্দে মাইওপোম্পা জানিয়েছেন, হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে একটি তদন্ত শুরু করা হয়েছে। জাতিসংঘ বলেছে, কামউইনা সাপু গোষ্ঠীর নেতা জ্যা পিয়েরে পান্ডিকে হত্যা করার পর সৃষ্ট অস্থিরতায় কাসাই অঞ্চলে এ পর্যন্ত ৪০০ জন নিহত ও দুই লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। ২০১৬ সালের জুনে কামউইনা সাপু গোষ্ঠী তাদের নেতাকে স্থানীয় প্রধান হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি করে ওই অঞ্চল থেকে রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠানকে সরিয়ে নেওয়ার দাবি তোলে। এর দুই মাস পর তাদের নেতা পান্ডিকে হত্যা করে নিরাপত্তা বাহিনী। উল্লেখ্য, ডিআর কঙ্গো বা গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র আফ্রিকা মহাদেশের একটি রাষ্ট্র। পূর্বে এটি জায়ার নামে পরিচিত ছিল।

আরো ঘটনা : বহির্বিশ্ব
 
 

Spinach Day

Spinach Day

This would be a better place for children if parents had to eat spinach.
– Marx

It’s not just Popeye who will be strong to the finish on Spinach Day, but everyone who chooses to celebrate the day by consuming some of this leafy green plant will get to join in the health benefits as well!

Packed with nutrients such as Iron, Vitamin A and Calcium, spinach is known for being a healthy part of a balanced diet – but do we eat enough of it? If not, why not try a new recipe on Spinach Day? Sauté it in olive oil and a little bit of garlic – or what about a baby spinach salad with mozzarella cheese, avocado slices and crispy bacon crumbled on top? Delicious!

You can purée spinach up and hide it in soups and pizza sauces for the finicky eaters in your life who might not eat it straight up. So, no excuses – get your leafy greens down you on Spinach Day!

দেশেবিদেশে : আজকের ছুটির দিন ও উদযাপনা

Hawaii : Prince Jonah Kuhio Kalanianole Day/Regatta Day
Bangladesh : Independence Day (1971)
Taiwan : Birthday of Kuan Yin, Goddess of Mercy

 
আজকের উদ্ধৃতি

আজকের তারিখ ও এখনকার সময় (বাংলাদেশ)

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।